১৯ বছরের ত’রুণীর সঙ্গে ৬১ বছরের বৃ’দ্ধের প্রেম

আমেরিকান ১৯ বছর বয়সী এক তরুণী, একটি ৬১ বছরের বৃদ্ধের সঙ্গে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নেয়। আর এই কারণে পরিবারের সঙ্গে কথা বলাতে নিয়ে যায় তাকে। তরুণীর পরিবার তাকে দেখে রেগে যায়।

ওই তরুণী যখন প্রেমিককে নিয়ে প্রথমবার বাড়িতে গেলেন, পরিবারের সঙ্গে দেখা করার জন্য, তাকে দেখেই তারা পুলিশ ডেকে নিয়ে আসেন। ১৯ বছরের তরুণী বৃদ্ধের সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

এরই মধ্যে জানিয়ে দিতে চান যে ওই বৃদ্ধ আগে থেকেই বিবাহিত এবং দুই বাচ্চার বাবা।তরুণী তার সম্পর্কে সবকিছু জানেন। তার কোনো আপত্তি নেই। তরুণীর যে মা-বাবা প্রথমবার পুলিশ ডেকে নিয়ে এসেছিলেন,

কিন্তু পরে যখন সম্পর্ক তৈরি হয়ে যায় তখন তারাও মেনে নেন। দুজনের মধ্যে বয়সের পার্থক্য ৪২ বছর।স্মাইলি মুন নামে ওই তরুণী প্রথমবার ২০২০ সালে নিজের ৬১ বছরের স্বামী কেবিন এর সঙ্গে ডেটিং সাইটে পরিচিয় হয়।

তারপর ৪২ বছরের পার্থক্য থাকা সত্ত্বেও তারা মিলিত হন। তার স্বামী কেভিন একজন অভিজ্ঞ পুলিশ কর্মকর্তা। স্মাইলি মুন অনলাইন চ্যাট করতে গিয়ে কয়েক মাসের মধ্যেই সরকারিভাবে একজন আরেকজনের সঙ্গে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন।

এরপর সাংবাদিকদের কেভিন জানিয়েছেন, আমি তাকে খুব পছন্দ করি।তরুণী জানান, তারা দুজনে খুব খুশি এবং সুখেই রয়েছেন। তারা এখনও প্রথম দিনের ব্যাপারে কথা বলেন। যেদিন তারা দেখা করেছিলেন।

কেভিন প্রথমে প্রস্তাব দেয়। তিনি নিজের হাত আমার মুখে নিয়ে আসেন এবং আমাকে প্রথম কিস করেন। এটি আমাদের প্রথম সামনাসামনি সাক্ষাৎ। আমরা দুজনেই নিজের ইচ্ছেতেই একসঙ্গে থাকতে শুরু করেছি।

Check Also

এক ঘণ্টার জন্য ইউএনও হলেন দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী

সরকারের মাঠ প্রশাসনে দক্ষতা নিশ্চিত করতে ও শৃঙ্খলা অক্ষুণ্ন রাখতে সংশ্লিষ্ট নীতিমালায় আনা হচ্ছে গুরুত্বপূর্ণ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *